x

এইমাত্র

  •  ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ৯১৮, মারা গেছেন ১৯ জন: এনডিটিভি
  •  ব্রিটেনে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২৬০ জন; মোট ১০১৯। আক্রান্ত বেড়ে ১৭ হাজার ৮৯: ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড
  •  জার্মানিতে বসবাসরত পাঁচজন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন
  •  ইরানে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা গেছেন আরও ১৩৯ জন। এছাড়া দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০৭৬ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩৫৪০৯ এবং মৃত ২৫১৭

গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে কী করবেন?

প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০১৮, ২১:৩১

জাগরণীয়া ডেস্ক

যারা রান্নার কাজে সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহার করেন, তাদেরকে অবশ্যই কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। সামান্য ভুলে দিতে হতে পারে বড় ধরণের মাশুল। অথচ একটু সচেতন থাকলেই বড় ধরণের বিপদ এড়াতে পারেন। 

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ বা গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে কী কী করণীয়-

১) সিলিন্ডারের গ্যাস লিক থেকেই ঘটে মূল দুর্ঘটনা। তাই সিলিন্ডার লিক হচ্ছে কি না, নিয়মিত পরীক্ষা করুন। এক্ষেত্রে দক্ষ লোকের সহায়তা নিতে পারেন। তাছাড়া ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিজেও চেক করতে পারেন। পানিতে সাবানের গুঁড়া মিশিয়ে ফেনা তৈরি করুন। এবার ফেনা হস পাইপ, রেগুলেটর, ভাল্ব ইত্যাদিতে লাগান। যদি দেখেন সাবান-পানির ফোঁটা বড় হচ্ছে, তাহলে বুঝবেন লিক হচ্ছে গ্যাস। দ্রুত ব্যবস্থা নিন। শিওর না হলে দক্ষ লোককে খবর দিন এবং ব্যবস্থা নিন।

২) সিলিন্ডার উচ্চ চাপ ও তাপের এলাকায় রাখবেন না। রান্না তুলে দিয়ে অন্য কাজে যাবেন না। এতে খাবারে আগুন ধরে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হতে পারে। 

৩) রান্না করার সময় অবশ্যই নিজের কাপড়ের ক্ষেত্রে সাবধান হোন। কারণ, কাপড়ে আগুন লেগে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। 

৪) রান্না শেষে গ্যাস বন্ধ হয়েছে কীনা ভালো করে লক্ষ্য করুন। গ্যাসের পাইপ যেন কোনো ভাবে গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখুন। 

৫) অনেকেই গ্যাসের লাইটার বা দেশলাই ব্যবহারের পর তা সিলিন্ডারের উপরে রেখে দেন। এটা একেবারেই উচিত নয়। 

৬) অনেকেই গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনো কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রাখেন। এতে গ্যাস লিক হলেও বোঝার উপায় থাকে না। প্রতি দুই থেকে তিন বছর অন্তর গ্যাস পাইপ বদলে ফেলুন। 

৭) গ্যাসের পাইপ পরিষ্কার করতে শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন। প্রয়োজনে হালকা ভিজিয়ে নিন। কখনোই সাবান ব্যবহার করবেন না।

৮) সেফটি ক্যাপ ব্যবহার করুন। রান্নাঘর থেকে বের হওয়ার পরেই সিলিন্ডারের মুখ ঢেকে রাখুন সেফটি ক্যাপে।

৯)  সিলিন্ডারের গ্যাস খুব বাজে গন্ধযুক্ত। লিক হলে খুব উৎকট গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। রান্নাঘরে ঢুকেই গ্যাসের গন্ধ পেলে তখনই বেরিয়ে আসুন রান্নাঘর থেকে। রান্না গ্যাস বাতাসের চেয়ে ভারী, ফলে তা মেঝের কাছাকাছি ঘোরাফেরা করে। তাই কাপড়, তোয়ালে বা হাতপাখা দিয়ে বাতাস করে গ্যাস রান্নাঘরের বাইরে বের করে দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন। এসময় ঘরের বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করে দিন। প্রয়োজনে মেইন সুইচ বন্ধ করুন। দেশলাই, মোমবাতি বা আগুনের অন্য কিছু জ্বালানো যাবে না কোনোভাবেই।

১০) রান্নাঘর কখনোই পুরোপুরি বদ্ধ করবেন না।

১১) সিলিন্ডারের গ্যাস যদি শরীরের কোথাও লাগে, ২০ মিনিট ধরে পানি দিয়ে দ্রুত ধুয়ে ফেলুন। কাপড়ে লাগলে কাপড়গুলো খুলে ফেলুন।

১২) সিলিন্ডারের গ্যাস যদি চোখে লাগে, তাহলে পানির ঝাপটা দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলুন। শরীরে আগুন লাগলে দ্রুত কাপড় খুলে ফেলুন। মাটিতে গড়াগড়ি দিন।

১৩) গ্যাসের আগুনে পুড়ে গেলে দ্রুত হাসপাতালে নিন। যদি শরীরে ফোস্কা পড়ে, তা তুলে ফেলবেন না। 

১৪) যদি সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে, তাহলে আক্রান্তদের খোলা জায়গায় নিতে হবে, যেখানে বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা আছে। তারপর দ্রুত হাসপাতালে নিতে হবে। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত