x

এইমাত্র

  •  ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ৯১৮, মারা গেছেন ১৯ জন: এনডিটিভি
  •  ব্রিটেনে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২৬০ জন; মোট ১০১৯। আক্রান্ত বেড়ে ১৭ হাজার ৮৯: ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড
  •  জার্মানিতে বসবাসরত পাঁচজন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন
  •  ইরানে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা গেছেন আরও ১৩৯ জন। এছাড়া দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০৭৬ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩৫৪০৯ এবং মৃত ২৫১৭

কেউ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে কী করবেন?

প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০১৮, ২০:৪৮

জাগরণীয়া ডেস্ক

প্রতিদিনের সব কাজেই কোন না কোনভাবে আমরা বিদ্যুতের উপর নির্ভরশীল। একদিন বিদ্যুৎ না থাকলেই বোঝা যায় এর অপরিহার্যতা ঠিক কতটুকু। সেই সাথে সাবধানতা না মানলে অনেক সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়, ঘটতে পারে মৃত্যুও। 

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে সত্যিকার অর্থে আক্রান্ত ব্যক্তির কিছুই করার থাকে না। সেক্ষেত্রে কেউ বিদ্যুৎপৃষ্ট হলে তাকে বাঁচাতে করণীয়গুলো হলো-

১) কেউ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে দ্রুত মেইন সুইচ অফ করুন। কোনভাবেই আক্রান্ত ব্যক্তি স্পর্শ করবেন না বা গায়ে পানি দিবেন না।

২) মেইন সুইচ অফ করতে অনেক সময় চলে যায়। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে। সেক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তি ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা উচিত আগে। ধাক্কা দেয়া জন্য অবশ্যই শুকনো উলের পোশাক, কাঠের টুকরো, খবরের কাগজ অথবা রাবার জাতীয় তড়িৎ অপরিবাহী বস্তু দিয়ে আঘাত করুন। তাহলে বিদ্যুতের উৎস থেকে সেই ব্যক্তির ছিটকে যাওয়া সম্ভব হবে। 

৩) বিদ্যুৎ থেকে মুক্তি পেলেও অনেক সময় ব্যক্তির শ্বাসপ্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়। তেমন হলে বুকের উপর জোরে চাপ দিয়ে হৃদযন্ত্র চালু করুন।

৪) দ্রুত হাসপাতালে নিন।

৫) বিদ্যুতের উৎস থেকে সরাতে পারলে আক্রান্ত ব্যক্তি কিছুটা সুস্থ বোধ করলে সঙ্গে সঙ্গে গরম দুধ ও গরম পানি খাওয়ান। এতে শরীরের রক্ত সঞ্চালন দ্রুত স্বাভাবিক হবে।

সাবধানতা:

ঘরে বিদ্যুতায়িত যেন না হন সেদিকে খেয়াল রাখতে কিছু সতর্কতা অবলম্বন জরুরী-

বিদ্যুতের কাজ করার সময় অবশ্যই মেইন সুইচ বন্ধ করে নিন।

বাড়ির সব কটি বৈদ্যুতিক তার ও আর্থিং ঠিক আছে কি না দেখে নিন।

কোনোভাবেই ভেজা হাতে বাড়ির বৈদ্যুতিক সুইচে হাত দেবেন না।

পায়ে রাবারের জুতা দিয়ে বিদ্যুতের কাজ করুন, খালি পায়ে এমন কাজে না হাত দেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

রাস্তায় খোলা তার এড়িয়ে চলুন।

রাস্তায় কোনো কারণে পানি জমে থাকলে সেখানে খালি পায়ে বা রাবার, স্পঞ্জ ভিন্ন অন্য উপাদানের জুতা পায়ে হাঁটাচলা করবেন না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত