x

এইমাত্র

  •  শক্তি হারাচ্ছে করোনাভাইরাস, দাবি ইতালির চিকিৎসকের
  •  চিন্তায় বিজ্ঞানীরা, বন্ধ হয়ে যেতে পারে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা
  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ২৩৮১ জন, মৃত ২২ জন
  •  বিশ্বে করোনায় মোট মারা গেছেন ৩ লাখ ৭৪ হাজার ৩২৭ জন
  •  বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ ২৮ লাখ ৫৮ হাজার ৩৭৪ জন

মাংস নিয়ে মা-মেয়ের মারামারি, থামাতে গিয়ে ঝালমুড়ি বিক্রেতার মৃত্যু

প্রকাশ : ০২ মে ২০২০, ১৬:৩২

জাগরণীয়া ডেস্ক

আকিকার মাংস বন্টন নিয়ে ঝগড়ায় লিপ্ত হন মা ও মেয়ে। এই ঝগড়া থামানোর প্রচেষ্টা করেন  প্রতিবেশী ঝালমুড়ি বিক্রেতা ইসমাইল হোসেনে (৫০)। এক পর্যায়ে মাথায় লাঠির আঘাত পান ইসমাইল হোসেন। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে তিনি মারা যান। ইসমাইল হোসেন নগরীর মতিহার থানার ধরমপুর মধ্যপাড়া মহল্লার মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে নিহতের প্রতিবেশী রিনা বেগমকে (২৫) একমাত্র আসামি করে মামলা হয়েছে। পরে আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার রিনা ওই এলাকার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী।

নগরীর মতিহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, শুক্রবার দুপুরে আকিকার মাংস বিতরণ নিয়ে রিনা বেগম তার মা সেলিনা বেগম ঝগড়ায় লিপ্ত হন। একপর্যায়ে তারা মারামারিতে জড়ান। প্রতিবেশী ইসমাইল হোসেন মা-মেয়েকে থামাতে এগিয়ে যান। এ সময় রিনা লাঠি দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন। গুরুতর অবস্থায় ইসমাইলকে রামেক হাসপাতালে নেন স্বজনরা। সেখানে রাতে তার মৃত্যু হয়।

ওসি আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে জাহিদ আলম শনিবার সকালে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। এতে রিনা বেগমকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। এরই মধ্যে আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। দুপুরের পর তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত