x

এইমাত্র

  •  শ্বাসকষ্টে মারা গেলেন ভিকারুননিসার শিক্ষিকা তাজিম রহমান
  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ২৪২৩ জন, মৃত ৩৫ জন
  •  বিশ্বে করোনায় মোট মারা গেছেন ৩ লাখ ৮৮ হাজার ২৪৪ জন
  •  বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ ৩১ লাখ ৮১ হাজার ১৩১ জন

মঙ্গলবার মুক্তি পেতে পারেন মিন্নি

প্রকাশ : ৩০ আগস্ট ২০১৯, ১৬:৪২

জাগরণীয়া ডেস্ক

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় কারাগারে থাকা রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির শর্তসাপেক্ষে জামিন আবেদন মঞ্জুরের পর আদালতের অন্যান্য কার্যবিধি শেষে আগামী ০৩ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) কারাগার থেকে মুক্তি পেতে পারেন বলে ধারণা করছেন মিন্নির আইনজীবিরা। 

মিন্নি কারাগারমুক্ত হতে যাচ্ছেন কবে নাগাদ জানতে চাইলে মিন্নির পক্ষের আইনজীবী মাহবুবুল বারি আসলাম বলেন, ‘দু’দিন সরকারি ছুটির পর রোববার উচ্চ-আদালত থেকে জামিন মঞ্জুর সংক্রান্ত বিচারপতি মহোদয়ের স্বাক্ষরিত আদেশ বরগুনার আদালতে পাঠানো হবে। উচ্চ আদালত, যে আদালতে বেলবন্ড দাখিল করতে বলবে ওই আদালতে মিন্নির পক্ষে ‘বিবিধ মামলা’ (মিসকেস) করতে হবে। মামলার পর কোর্ট মিন্নির জামানতনামা দাখিলের আদেশ দেয়ার পর জামানতনামা দাখিল করে মিন্নি কারাগার থেকে মুক্ত হবেন। এসব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে মঙ্গলবার নাগাদ সময় লেগে যেতে পারে’।

গত ২৯ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) দুপুরে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মিন্নির জামিনের রায় দেন। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী। 

এর আগে ২৮ আগস্ট (বুধবার) মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে এ মর্মে জারি করা রুলের উপর জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনসরুল হক চৌধুরীর শুনানি শেষ করেন। গত ৫ আগস্ট (সোমবার) মিন্নির জামিন আবেদনের কথা জানিয়েছিলেন জেড আই খান পান্না। ২০ আগস্ট এক সপ্তাহের রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। রুলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে সিডি (কেস ডকেট) নিয়ে হাইকোর্টে হাজির হতে বলা হয়। এছাড়া মিন্নির সংশ্লিষ্টতার বিষয় জানিয়ে করা সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে পুলিশ সুপারকে (এসপি) লিখিত ব্যাখ্যা দিতেও বলা হয়। সে অনুযায়ি মামলার কেস ডকেট নিয়ে আদালতে হাজিরা দেন তদন্ত কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন প্রকাশ্য দিবালোকে বরগুনা সরকারি কলেজ রোডে স্ত্রী মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। পরে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গত ০২ জুলাই হত্যাকাণ্ডের প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। এর মধ্যে মামলার অন্য আসামিদেরও গ্রেফতার করা হয়। গত ১৬ জুলাই সকালে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বরগুনার পুলিশ লাইনে নিয়ে যাওয়া হয় মিন্নিকে। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রিফাত হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় মিন্নিকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত