x

এইমাত্র

  •  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একদিনে ১৮ জন করোনায় আক্রান্ত
  •  ২০ মিনিটে করোনা টেস্টের ট্রায়াল শুরু যুক্তরাজ্যে
  •  গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন সংক্রমিত ১৬৯৩ জন, মৃত্যু ২৪
  •  বিশ্বে করোনায় মোট মারা গেছেন ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৯৯৭ জন
  •  বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ ২০ লাখ ৯৪ হাজার ১৪৩ জন

১৯ বছর পর স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবনের রায়

প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৮:৫০

জাগরণীয়া ডেস্ক

হত্যার ১৯ বছর পর ঝিনাইদহের মহেশপুরে স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন হত্যা মামলায় স্বামী উজ্জল হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই রায়ে উজ্জ্বল হোসেনের প্রতিবেশী শুকুর আলীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

১৯ আগস্ট (সোমবার) দুপুরে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক এমজি আযম এ রায় দেন। একই সঙ্গে তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলায় অপর তিন আসামিকে খালাস দেওয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মহেশপুর উপজেলার কেশবপুর গ্রামের মনোয়ারার সঙ্গে কানাইডাঙ্গা গ্রামের উজ্জল হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবীতে মনোয়ারার উপর অকথ্য নির্যাতন চালায় উজ্জ্বল ও তার পরিবারের সদস্যরা। একপর্যায়ে মনোয়ারাকে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে নিয়ে আসে তার পরিবার। এসময় স্বামী উজ্জল ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে দু’টি মামলা দায়ের করেন মনোয়ারার পরিবার।২০০১ সালের ২৯ জুন মনোয়ারার পরিবারের ক্ষমা চেয়ে উজ্জ্বল তার স্ত্রীকে আবার নিয়ে আসে। এর দুইদিন পর ১ জুলাই চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বলাতলা খাল থেকে ঐ গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ৬ জুলাই বাদী হয়ে মহেশপুর থানায় আট জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বাবা শহিদুল ইসলাম। মামলাটির তদন্ত শেষে ২০০২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি পাঁচ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে পুলিশ। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত