কেন পান করবেন ডাবের পানি

প্রকাশ : ০৬ মার্চ ২০১৮, ১৮:১৪

জাগরণীয়া ডেস্ক

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে সবচেয়ে পরিচিত ফলের অন্যতম হলো ডাব। ডাবের ভেতরে যে সুমিষ্ট পানীয় থাকে, সেটি যুগ যুগ ধরে সবচেয়ে উত্তম ও পুষ্টিগুণে ভরপুর প্রাকৃতিক পানীয় হিসেবে মানুষের কাছে স্থান পেয়ে আসছে।​

গর্ভবতী মায়ের স্বাস্থ্য সুরক্ষায়: গর্ভকালীন বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা যেমন সকালের অস্বস্তি, বমি বমি ভাব, মাংসপেশিতে টান-এসব সমস্যা সমাধানে কার্যকরী ভূমিকা রাখে ডাবের পানি।

রক্তচাপ কম রাখতে: ডাবের পানিতে থাকা পটাসিয়াম হৃদযন্ত্রের ওপর সোডিয়ামের ক্ষতিকর প্রভাব কাটাতে সাহায্য করে, যার ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়া অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা আর মানসিক চাপও নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে।

হৃদযন্ত্রের সুরক্ষায়: এই পানীয় দেহের ক্ষতিকর চর্বি কমায়, আবার অন্যদিকে উপকারী স্নেহজাতীয় উপাদানের বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখে। কোলেস্টেরল ও চর্বিমুক্ত বলে এর  সাথে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অপ্রদাহী উপাদান ধমনীতে রক্ত সঞ্চালন উন্নত করে, যা হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়।

ওজন ও মাইগ্রেন সমস্যা: যাদের মাইগ্রেনের ব্যথা আছে তাদের জন্য প্রাকৃতিক টনিক হিসেবে কাজ করে ডাবের পানি। এছাড়া ডাবের পানি শরীরে অতিরিক্ত পানি জমতে দেয় না এবং দেহ থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয় যা ওজন কমাতে সহায়ক।

কিডনির সুরক্ষায়: কিডনিতে স্ফটিকজাতীয় পদার্থের উপস্থিতির ফলে কিডনিতে পাথর জমা হওয়ার মত ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয়। মূত্রত্যাগের মাধ্যমে দেহের বাইরে এই স্ফটিকজাতীয় পদার্থ বের করে সাহায্য করে ডাবের পানি।

টিউমার তৈরিতে বাধা: এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং দেহে টিউমারের সৃষ্টি রোধ করতে কাজ  করে। এমনকি কেমোথেরাপির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকে সুরক্ষা দেয় ডাবের পানি।

দৃষ্টিশক্তি ও স্মৃতিশক্তি বাড়ায়: চোখের জন্য দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় ১.৪ গ্রাম ভিটামিন বি এর চাহিদা সম্পূর্ণ পূরণ করে দুই কাপ ডাবের পানি। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতেও ভূমিকা পালন করে ডাবের পানি।

সূত্র: ইন্টারনেট

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত